চোখের নিচে কালি

অনেকেরই দুই চোখের নিচের অংশটুকু কালচে হয়ে থাকে। কারও বা হয়তো একটু ফুলেও থাকে। মুখের বাকি অংশের রঙের সঙ্গে এটি বেমানান দেখায়। এটি ঢাকতে অনেকে বাধ্য হয়ে প্রসাধনী, চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে থাকেন। তবে যা-ই হোক, চোখের নিচে কালো হয়ে গেলে কেবল সৌন্দর্যহানিই ঘটে না, ক্লান্ত ও অবসাদগ্রস্তও দেখায়।
কারণ
বয়সের ছাপ: আমাদের চোখের নিচের ত্বকটি সবচেয়ে বেশি পাতলা। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে তা আরও পাতলা হয়ে উজ্জ্বলতা হারায়। বংশগতভাবে অনেকের এই সমস্যা থাকে।
ঘুমের ঘাটতি: পর্যাপ্ত ঘুমের অভাব, অতিরিক্ত ক্যাফেইন ও অ্যালকোহল, সূর্যরশ্মির প্রভাব এবং মানসিক চাপ, অ্যালার্জি, ঠান্ডা বা সর্দি লাগা এই সমস্যার জন্য দায়ী।
প্রসাধন: চোখ কচলানো, চোখে বেশি প্রসাধনী ব্যবহার ও প্রসাধনী না উঠিয়ে ঘুমাতে যাওয়াও দায়ী হতে পারে।
পরামর্শ
সুস্থ জীবনধারা: রাত জাগার অভ্যাস ত্যাগ করুন। সন্ধ্যার পর কফি বা অ্যালকোহল খাবেন না। রাতে প্রচুর লবণযুক্ত খাবারও খাবেন না। ঘুমানোর সময় একটু উঁচু বালিশ ব্যবহার করুন।
সূর্যরশ্মি: চোখের প্রসাধনী ভালো করে ধুয়ে তবেই ঘুমাতে যাবেন। রোদে বেরোনোর সময় কালো চশমা ও সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।
নাকের ড্রপ: ঠান্ডা-সর্দি হলে রাতে শোয়ার সময় স্যালাইন দিয়ে নাক পরিষ্কার করুন বা নাকে ড্রপ-স্প্রে ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *