সবুজ পরিবেশে থাকা শিশুর আইকিউ বেশি

সবুজ এলাকায় বেড়ে ওঠা শিশুরা উচ্চতর আইকিউর অধিকারী হয়। একটি গবেষণায় এটি প্রমাণিত হয়েছে। গবেষকরা ১০ থেকে ১৫ বছর বয়সি ৬০০ শিশুর আইকিউ এবং আচরণ নিয়ে গবেষণা চালিয়ে এ তথ্য জানতে পেরেছেন। তারা তাদের আশপাশের সবুজ পরিবেশ পরীক্ষা করতে স্যাটেলাইট চিত্র ব্যবহার করেছেন। তারা দেখতে পেয়েছেন, সবুজ পরিবেশ প্রতি তিন শতাংশ বৃদ্ধি জন্য আইকিউ স্তর ২ দশমিক ৬ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়েছে।

বেলজিয়ামের হ্যাসেল্ট ইউনিভার্সিটির একটি দল ছয় শতাধিক শিশুর আইকিউ বিশ্লেষণ করেছে এ গবেষণার অংশ হিসেবে। গবেষকরা আরো জানতে পেরেছেন যে, বাচ্চাদের আচরণের ওপরও সবুজ পরিবেশ বিরাট ভূমিকা রাখে। পরিবেশ যত সবুজ হয় তাদের চিন্তাচেতনাও তত উন্নত এবং মানবিক হয়। একই সঙ্গে বুদ্ধিমত্তাও সমহারে বৃদ্ধি পায়। এ কারণে উন্নত দেশগুলোতে বাড়িঘর বানানোর সময় বাড়ির সামনে সবুজ লন সৃষ্টির বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। তবে গবেষকরা এখনো নিশ্চিত নন যে, সবুজ পরিবেশের সংস্পর্শে এসব শিশুদের আইকিউ ঠিক কীভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। কোন নির্দিষ্ট জিনিসটি এর পেছনে ভূমিকা রেখেছে। গবেষণায় অংশ নেওয়া শিশুদের গড় আইকিউ স্কোর ছিল ১০৫। দেখা গেছে, ৮০ শতাংশের নিচে যাদের আইকিউ স্কোর আছে তারা অন্যদের চেয়ে অন্তত চার শতাংশ কম সুবজ পরিবেশে বেড়ে উঠেছে। বিজ্ঞানীরা আরো দেখতে পেয়েছেন, প্রতি তিন শতাংশ সবুজায়ন বৃদ্ধির জন্য আচরণগত সমস্যাও সমহারে হ্রাস পেয়েছে। গবেষণার লেখক টিম নাওরোট দ্য গার্ডিয়ানকে বলেছেন, ‘সবুজ পরিবেশ আমাদের বুদ্ধি গঠনের ফাংশনের সঙ্গে জড়িত রয়েছে, এমন অনেক প্রমাণ রয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, নগর নির্মাতাদের সবুজ জায়গাগুলোতে বিনিয়োগকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। কারণ বাচ্চাদের তাদের পূর্ণ সম্ভাবনা বিকাশের জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরি করা সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ।’—সায়েন্স ডেইলি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *